সর্বশেষ সংবাদ

ঢাকা জেলার বাছাই পর্ব উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে শুরু হলো প্রতিভাবান সাঁতারু অন্বেষণ প্রতিযোগিতা ‘সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ’

ঢাকা, ১৯ মে ২০১৬ঃ ঢাকা জেলার বাছাই পর্ব উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আজ বৃহস্পতিবার (১৯-০৫-২০১৬) শুরু হলো প্রতিভাবান সাঁতারু অন্বেষণ প্রতিযোগিতা ‘সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ’। এ উপলক্ষ্যে মিরপুরস্থ সৈয়দ নজরুল ইসলাম জাতীয় সুইমিং কমপে¬ক্সে প্রতিযোগিতার লোগো উন্মোচন ও আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনের সভাপতি ও নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, ওএসপি, এনডিসি, পিএসসি।

নদীমাতৃক বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রতিভাবান সাঁতারুদেরকে তুলে আনার লক্ষ্যে বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশন ও নৌবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে এ সাঁতারু অন্বেষণ প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। সারাদেশের ৬৪টি জেলার ৪৮৯টি উপজেলা হতে প্রায় ২৫ হাজার সাঁতারু এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। উলে¬খ্য, বর্তমান সরকার দেশের ক্রীড়া জগতের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। সরকারের অনুপ্রেরণা, পৃষ্ঠপোষকতা ও নিবিড় তত্বাবধানে এ আয়োজন পরিচালিত হচ্ছে।

‘সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী দিনে ঢাকা জেলার বাছাই পর্বে মোট ৮০০ জন প্রতিযোগী অংশ নেয়। তীব্র প্রতিদ্বন্দিতার মধ্য দিয়ে সেরা ৪০ জন নারী-পুরুষ সাঁতারু নির্বাচিত হয়। এই ৪০ জন সাঁতারু ২য় পর্বে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি ঢাকা জেলার নির্বাচিত এই সেরা সাঁতারুদের হাতে মেডেল, সার্টিফিকেট ও নগদ অর্থ পুরস্কার তুলে দেন।
১১-১২ বৎসর বালক গ্র“পে প্রথম হয়েছে এনামুল ও দ্বিতীয় হয়েছে রাব্বী। ১১-১২ বৎসর বালিকা  গ্র“পে প্রথম হয়েছে রুপা ও দ্বিতীয় হয়েছে মেরী।  ১৩-১৪ বৎসর বালক গ্র“পে প্রথম হয়েছে জোছেল ও দ্বিতীয় হয়েছে রাকিবুল। ১৫-১৭ বৎসর বালক গ্র“পে প্রথম হয়েছে মোঃ টিটু মিয়া ও দ্বিতীয় হয়েছে জামরুল। ১৮ ও তদুধর্¦ বয়স গ্র“পে প্রথম হয়েছে শিহান ও দ্বিতীয় হয়েছে আলী হোসেন।

‘সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় ৪টি বয়সভিত্তিক গ্র“পে (১১-১২ বছর, ১৩-১৫ বছর,     ১৫-১৭ বছর  এবং ১৮ থেকে তদুর্ধ বয়সী) নারী ও পুরুষ সাঁতারুরা অংশগ্রহণ করছে। গণমাধ্যমে প্রচার প্রচারণার প্রেক্ষিতে ইতিমধ্যে সারাদেশ হতে ব্যাপক সংখ্যক প্রতিযোগী কল সেন্টার (০৯৬৭৮-৮০০৭০০) ও ওয়েবসাইটের (www.sherashataru.com) মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করছেন। এছাড়া প্রতিযোগিতার দিনে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হয়েও রেজিস্ট্রেশন করা যাচ্ছে।

দেশের ৬৪ টি জেলায় পর্যায়ক্রমে প্রতিযোগিতার বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হবে যা আগামী ২ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে।  ঢাকা বিভাগের অন্যান্য জেলায় আগামী ২৪ মে মুন্সীগঞ্জে, ২৫ মে নারায়নগঞ্জে, ২৬ মে নরসিংদীতে,  ২৮ মে কিশোরগঞ্জে, ২৯ মে নেত্রকোনায়, ৩০ মে ময়মনসিংহে, ৩১ মে শেরপুরে, ০১ জুন জামালপুরে, ০২ জুন টাঙ্গাইলে এবং ০৪ জুন গাজীপুরে বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। পরবর্তীতে ধারাবাহিকভাবে বরিশাল, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর, চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগে বাছাই অনুষ্ঠিত হবে। এভাবে সারা দেশ হতে প্রথম পর্বে মোট ১০০০ জন প্রতিভা সম্পন্ন সাঁতারু বাছাই করে ঢাকায় আনা হবে।

প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় পর্বে ১০০০ জনের মধ্যে পুনরায় প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ১৬০ জনকে নির্বাচিত করে বিদেশী প্রশিক্ষকের মাধ্যমে ৩ মাসব্যাপী নিবিড় প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। ২য় পর্বে সেরা ১৬০ জনের প্রত্যেককে মেডেল, সার্টিফিকেট ও নগদ অর্থ প্রদান করা হবে।

প্রশিক্ষণ শেষে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ১৬০ জন হতে সেরা ৬০ জন সাঁতারু নির্বাচন করা হবে। এই সেরা ৬০ জন সাঁতারুর প্রত্যেককে মেডেল, সার্টিফিকেট ও নগদ অর্থ পুরস্কার দেওয়া হবে। তাছাড়া এদের মধ্যে ৪টি ইভেন্টের সেরা ৪ জন নারী এবং ৪ জন পুরুষ সাঁতারুকে ৫ লক্ষ করে টাকা প্রদান করা হবে। এভাবে তিনটি পর্বে সর্বমোট ৬৫ লক্ষ টাকার পুরুস্কারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সেরা ৬০ জন সাঁতারু বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনে যোগ দিবেন এবং তাদেরকে বিশ¡ মানের সাঁতারু হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে দীর্ঘ মেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। বিশেষভাবে উলে¬খ্য, তাদের লেখাপড়ার ব্যবস্থাসহ যাবতীয় ব্যয়ভার সুইমিং ফেডারেশনের পক্ষ থেকে বহন করা হবে।