সর্বশেষ সংবাদ

বিমান বাহিনী প্রধানের সাথে মায়ানমার বিমান বাহিনীর কমান্ডার ইন চীফ এর সাক্ষাৎ

ঢাকা, ০৭ নভেম্বরঃ- কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী জেনারেল খিন অং মিন্ট বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল আবু এসরার, বিবিপি, এনডিসি, এসিএসসি এর সাথে বিমান বাহিনী সদর দপ্তরে আজ সোমবার (০৭-১১-২০১৬) এক সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন।

সাক্ষাতকালে তিনি বিমান বাহিনী প্রধানের সাথে কিছু সময় অতিবাহিত করেন এবং কুশল বিনিময়সহ পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন। এছাড়া তারা বাংলাদেশ ও মায়ানমার সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যকার বিদ্যমান সম্পর্ক আরো জোরদার করার লক্ষ্যে পারস্পারিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বিমান বাহিনী সদর দপ্তরের পিএসও এবং উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী সদর দপ্তরে এসে পৌঁছালে বিমান বাহিনীর একটি চৌকস কন্টিনজেন্ট তাঁকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। তিনি গার্ড পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। এছাড়াও তিনি বিমান বাহিনী সদর দপ্তর প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপণ করেন।

সকালে কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী ঢাকা সেনানিবাসের শিখা অনির্বাণে যান এবং সেখানে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে একাত্তরের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শাহাদৎ বরণকারী সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বাংলাদেশে অবস্থানকালে কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী বঙ্গভবন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সেনা সদর, নৌ সদর, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, ডিফেন্স সার্ভিস কমান্ড এন্ড ষ্টাফ কলেজ, ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ, বিমান বাহিনী ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান, বিমান বাহিনী জাদুঘর ও হীরণ পয়েন্টসহ বিভিন্ন সামরিক ও অসামরিক স্থাপনা পরিদর্শন করবেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধু পরিদর্শনকালে ঘাঁটির বিভিন্ন ফ্লাইং স্কোয়াড্রন, ২১৪ মেইনটেন্যান্স এবং ওভারহোলিং ইউনিট পরিদর্শনসহ বিভিন্ন স্ট্যাটিক ডিসপ্লে প্রত্যক্ষ করবেন।

উল্লেখ্য যে, কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী গত ০৬ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে এক সরকারি সফরে বাংলাদেশে আসেন। তিনি সফরশেষে ১১ নভেম্বর ঢাকা ত্যাগ করবেন।

কমান্ডার ইন চীফ (এয়ার), মায়ানমার বিমান বাহিনী এর এই সফর দুই দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান সুসম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করা যায়।