সর্বশেষ সংবাদ

রামু সেনানিবাসে ১০ পদাতিক ডিভিশনের অধীন ৪ টি ইউনিটের পতাকা উত্তোলন

কক্সবাজার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ঃ কক্সবাজারের ১০ পদাতিক ডিভিশনে নবপ্রতিষ্ঠিত ০৪ টি ইউনিটের পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠান আজ মঙ্গলবার (২০-০২-২০১৮) রামু সেনানিবাসে অনুষ্ঠিত হয়। সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) লেঃ জেনারেল মোঃ নাজিম উদ্দীন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

১০ পদাতিক ডিভিশনের অধীনস্থ ৬৩ ইস্ট বেংগল, ৩৯ এসটি ব্যাটালিয়ন, ৫৫ ফিল্ড এ্যাম্বুলেন্স এবং ১৫৩ ফিল্ড ওয়ার্কশপ কোম্পানি, ইএমই এর পতাকা উত্তোলন করেন সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফসহ উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ।

সিজিএস অনুষ্ঠানস্থলে এসে পৌঁছালে ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মোহাম্মদ মাকসুদুর রহমান তাকে অভ্যর্থনা জানান। অতঃপর প্যারেড কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ ইশতিয়াক জামিল এর নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর একটি চৌকস দল কুচকাওয়াজ প্রদর্শন করে এবং সিজিএস’কে সালাম প্রদান করে।

উপস্থিত সেনাসদস্যের উদ্দেশ্যে প্রদত্ত ভাষণে সিজিএস সকলকে যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সুশৃংখল, দক্ষ ও যোগ্য হিসেবে গড়ে উঠার নির্দেশ প্রদান করেন। সেই সাথে পেশাদারিত্বের ইপ্সিত মান অর্জনের মাধ্যমে অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক যে কোন হুমকি মোকাবেলায় সদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন। তিনি মায়ানমার হতে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির পুনর্বাসন, চিকিৎসা সেবা ও ত্রাণ বিতরণসহ অন্যান্য সহায়তায় ১০ পদাতিক ডিভিশনের অসামান্য ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা উর্দ্ধতন নেতৃত্বের প্রতি আস্থা, পারস্পারিক বিশ¡াস, সহমর্মিতা, ভ্রাতৃত্ববোধ এবং সর্বোপরি শৃংখলার মান বজায় রেখে নিজ নিজ কর্তব্য পালন করে যাবেন। ১০ পদাতিক ডিভিশনের আরো কিছু নবগঠিত ইউনিটের নবযাত্রার মাধ্যমে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রুপকল্প ফোর্সেস গোল ২০৩০ এর বাস্তবায়নের পথে আরেকটি মাইলফলক উন্মোচিত হলো। সিজিএস রামু সেনানিবাসের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য্য ও স্বল্প সময়ের মধ্যে সার্বিক উন্নয়নেরও ভূয়সী প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের পর্যটন নগরী কক্সবাজার জেলার রামুতে তিন বছর পূর্বে ১০ পদাতিক ডিভিশন গঠিত হয়। নবপ্রতিষ্ঠিত রামু সেনানিবাসকে পূর্ণাঙ্গ সেনানিবাস হিসেবে প্রতিষ্ঠায় আরেক ধাপ এগিয়ে গেল নতুন এ ৪টি ইউনিটের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে।