শুক্রবার, ৩রা এপ্রিল ২০২০ ইং; ২০শে চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ; ৯ই শাবান ১৪৪১ হিজরী
Home আন্তঃবাহিনী সংস্থা এমআইএসটিতে এনসিপিসি-২০২০ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত
R-02----------
R-01---------

এমআইএসটিতে এনসিপিসি-২০২০ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

32
0

 

ঢাকা, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০:- বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনায়েদ আহমেদ পলক, এমপি আজ শনিবার (২২-০২-২০২০) মিরপুর সেনানিবাসস্থ মিলিটারী ইনন্সিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি)-এ জাতীয় কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা (এনসিপিসি)- ২০২০ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করেন। এছাড়া, ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মানের লক্ষ্যে তিনি তরুণ প্রোগ্রামারদের প্রোগ্রামিং ও প্রবেøম সলভিং দক্ষতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, আগামী ২০২১ সালে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে সমস্যা সমাধানে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য আর্šÍজাতিক কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার জন্য আমাদের প্রতিযোগীরা ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করবে এবং উক্ত প্রতিযোগিতায় ভাল ফলাফলের মাধ্যমে দেশের জন্য সুনাম ও গৌরব বয়ে আনবে।

এমআইএসটি এর কমান্ড্যান্ট মেজর জেনারেল মোঃ ওয়াহিদ-উজ-জামান, উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এবং অভ্যাগত সকলকে ধন্যবাদ প্রদান করেন। শিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যমে বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তির বিকাশ সাধনে এমআইএসটি তার ভূমিকা পালন করে যাবে বলে তিনি তার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।তিনি বিসিসিকে পৃষ্ঠপোষকতার জন্য ও প্রোগ্রামের যারা স্পন্সর ছিলেন তাদের বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

আগামী ২০২১ সালে আন্তজার্তিক কলেজিয়েট প্রোগামিং প্রতিযোগিতা (আইসিপিসি) বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে। এই প্রেক্ষাপটে বর্তমান বছরে অনুষ্ঠিত জাতীয় পর্যায়ের এ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করছে। এ প্রতিযোগিতার জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বমোট ৩০২ টি দল রেজিস্ট্রেশন করে। যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে পরবর্তীতে ১৫০টি দলকে চুড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য মনোনীত করা হয়। এ প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য ডঃ মোহাম্মদ কায়কোবাদসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বনামধন্য অধ্যাপকবৃন্দ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সদস্যবৃ›দ্ব, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব প্রবেøম সেটারস এর সদস্যবৃন্দ, সর্বমোট ১৩ সদস্যের একটি উপদেষ্টা প্যানেল কাজ করেছে।

প্রোগ্রামিং এ দক্ষতা ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানের একটি প্রধান নিয়ামক। বিশ্ববিদ্যালয় পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে প্রোগ্রামিং-এ দক্ষতা ও আগ্রহ তৈরী করার লক্ষ্যে বাংলাদেশে বিভিন্ন পর্যায়ে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশে জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত প্রোগ্রাম সংক্রান্ত এ প্রতিযোগিতাটি হচ্ছে জাতীয় কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা (এনসিপিসি)। ১৯৯৮ সাল থেকে শুরু করে প্রতি বছর এ প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আইসিটি ডিভিশনের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এ প্রতিযোগিতাটির পৃষ্ঠপোষকতা করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার ২০২০-২০২১ সালকে মুজিব বর্ষ হিসাবে ঘোষনা করেছে এবং আগামী ১৭ মার্চ ২০২০ তারিখে মিলিটারী ইনন্সিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি), মিরপুর সেনানিবাস, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করতে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের এই বছরে মিলিটারী ইনন্সিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি), মিরপুর সেনানিবাস, এনসিপিসি-২০২০ আয়োজনের জন্য দায়িত্ব প্রাপ্ত হয়েছে যা আজ ২২ ফেব্রæয়ারি অনুষ্ঠিত হলো।

উক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান ও কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহম্মদ সাজ্জাদ হোসেন পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে তার সূচনা বক্তব্য উপস্থাপন করেন। এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে এমআইএসটি-এর সকল ডীন, বিভাগীয় প্রধান, উইং প্রধান, উচ্চপদস্থ সামরিক ও অসামরিক কর্মকর্তা, ছাত্র, শিক্ষক ও অন্যান্য আমন্ত্রিত অতিথিবৃ›দ্ব উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০০৯ সালে বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ প্রোগ্রামের রূপরেখা উন্মেচিত হয়। তথ্য প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থা ও জীবনমান উন্নয়নের জন্য এ রূপরেখা অত্যান্ত ফলপ্রসূ হিসাবে প্রমাণিত হয়েছে। সরকারী বেসরকারী সকল পর্যায়ে কম্পিউটার প্রযুক্তির ব্যবহার দৈনন্দিন কার্যক্রমে গতিশীলতা এনেছে এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আনয়নের মাপকাঠি হিসাবে পরিগণিত হয়েছে। শিক্ষার সকল স্তরে তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষা প্রচলিত হয়েছে এবং পরিসর বৃদ্ধি পেয়েছে। জাতীয় পর্যায়ে এ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাটি ডিজিটাল বাংলাদেশ নিমার্ণে বর্তমান সরকারের প্রতিশ্রæতিরই পরিচায়ক।

(32)

Close