সোমবার, ৪ঠা জুলাই ২০২২ ইং; ২০শে আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ৪ঠা জিলহজ্জ ১৪৪৩ হিজরী
Home সেনা বাহিনী সেনাপ্রধানের নির্দেশে সেনাবাহিনীতে প্রথমবারের মত চাকুরী মেলা-২০২২ আয়োজন
R - 05
R - 04
R - 03
R - 02
R - 01

সেনাপ্রধানের নির্দেশে সেনাবাহিনীতে প্রথমবারের মত চাকুরী মেলা-২০২২ আয়োজন

236
0

ঢাকা, ২৪ মে ২০২২ : সেনাবাহিনী প্রধানের দিকনির্দেশনায় আজ মঙ্গলবার (২৪ মে ২০২২) ঢাকা সেনানিবাসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইতিহাসে প্রথমবারের মত অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য এবং তদ্বীয় পরিবারবর্গের জন্য চাকুরী মেলার আয়োজন করা হয়। সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় ০২ দিন ব্যাপী এই মেলায় দেশের ৬০টি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। মেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি। উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, অবসরপ্রাপ্ত ও অবসরগামী সেনাসদস্যবৃন্দ এবং চাকুরীরত সেনাসদস্যবৃন্দের পরিবারের সদস্যবৃন্দ।

 

সেনাবাহিনী প্রধান মেলায় অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশ্যে তাঁর মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্যে তিনি অংশগ্রহণকৃত প্রতিষ্ঠানসমুহকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান। এছাড়াও অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যদের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা মূল্যায়নের জন্য তিনি প্রতিষ্ঠানসমুহের আন্তরিকতাকে সাধুবাদ জানান। সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাবৃন্দ তুলনামুলকভাবে কম বয়সে অবসর গমন করেন এবং তারপরও অনেকেরই কর্মদক্ষতা রয়ে যায়। এই সুদক্ষ জনশক্তিকে সুশীল সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়াসে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে বলে তিনি জানান। সুদক্ষ, সুশৃংখল এবং বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষিত ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যগণ তাদের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অগ্রগামী ভূমিকা রাখতে পারবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ বারের মেলা থেকে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতাসমুহ ভবিষ্যতে বিবেচনায় নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। এছাড়াও তিনি মেলায় আগত ব্যক্তিবর্গের সাথে মত বিনিময় করেন এবং বিভিন্ন ষ্টল ঘুরে দেখেন। মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমুহ এবং অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যবৃন্দ প্রথমবারের মতো গৃহীত এমন মহতী উদ্যোগের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান-কে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। মেলায় আগত প্রতিষ্ঠানসমুহ এবং বিশেষ করে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হয়, যা আয়োজকদেরও অনুপ্রাণিত করে।

 

সেনাসদস্যবৃন্দের পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে চাকুরীকালীন সময় বিভিন্ন ধরণের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণসমুহ যুদ্ধকেন্দ্রিক হলেও সেগুলো শান্তিকালীন সময়ে দেশ ও জাতি গঠনে উপযোগী এবং সেনাবাহিনী ব্যতীত অন্যান্য ব্যবসায়িক/সামাজিক প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ক্ষেত্রের জন্য প্রযোজ্য। অনেক অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য বর্তমানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে নিয়োজিত থেকে সুনামের সাথে চাকুরী করছেন। সেনাসদস্যদের যোগ্যতাকে প্রতিষ্ঠানের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানসমুহকে দক্ষ জনবল নিয়োগে সহায়তা করা ও অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যদের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাই এই চাকুরী মেলার মূল উদ্দেশ্য।

(236)

Close